মার্কেটিং কি ও কত প্রকার এবং কিভাবে কাজ করবেন

মার্কেটিং কি তা যদি আপনাকে লেখার ভাষায় প্রকাশ করি তাহলে হয়ত খুব সহজে বুঝতে পারবেন। মার্কেটিং হলো কোন পণ্যের প্রাণ। আপনি যদি কোন বিষয়কে মার্কেটিং না করেন তাহলে সে বস্তুটি আপনার কাছে যত মূল্যবান হোক না কেন বাস্তবে তার কোন দাম নেই। আর যদি আপনি সঠিক পদ্ধতিতে যে কোন বিষয়, জিনিস, সহ সব কিছু সুন্দর করে মার্কেটিং করেন তাহলে আপনার সেই বিষয়টির মূল্য অনেক। কথাই আছে ‘ প্রচারেই, প্রসার’..। একটি কোম্পানী বা পণ্য অফবা ব্যাক্তি যেটাই হোক না কেন অবশ্যই তারা মার্কেটিং এর জন্য বড় কিছু স্থানে যেতে পারে। হ্যাঁ বন্ধুরা আজ আমরা মার্কেটিং কি, মার্কেটিং কত প্রকার ও কি কি এবং কিভাবে আপনি মার্কেটিং করতে পারবেন। এই বিষয়গুলো নিয়ে আজকের মার্কেটিং বিষয়ে লেখা, আশাকরি পুরো পোস্ট মনযোগ সহকারে পড়বেন এবং মার্কেটিং আইডিয়া গ্রহন করবেন।

মার্কেটিং কি

মার্কেটিং হল একটি ইংরেজী শব্দ, যার বাংলা অর্থ আসে – বিপনন, প্রচার, দামি, আপনি যে কোনটিই ধরে নিতে পারেন। মনে করুন আপনি একটি মোবাইল ফোন তৈরি করলেন। এখন আপনি যদি প্রচার না করেন তাহলে আপনার ফোন সমপর্কে মানুষ জানতে পারবে না। আপনি যখন আপনার তৈরিকৃত ফোন বিক্রি করার জন্য সব জায়গায় প্রচার করবেন। আপনার ফোনের যাবতীয় তথ্য মানুষের মাঝে উপাস্থাপন করবেন তখন মানুষ আপনার তৈরি করা স্মার্টফোন কিনে নিবে। যদি তাদের সব কিছু পছন্দ হয়। এখন বলি আপনি যদি প্রচার না করতেন তাহলে কিন্তুু আপনার ফোন বিক্রি হত না।__ মোট কথা হল আমরা যে কোন প্রডাক্টের সেল বৃদ্ধি করার জন্য যেগুলো পদক্ষেপ গ্রহন করি সেটিই হলো মার্কেটিং

মার্কেটিং কত প্রকার

মার্কেটিং রয়েছে অনেক রকম। ধরুন আপনি কোন লোকবল সমৃদ্ধ বাজারে জোরে যে কোন ব্যক্তিকে গালি দিয়ে লোকসমাগম করলেন। এতে করেও যে ব্যক্তিকে গালি দিয়েছেন তার সমন্ধে উপস্থিত সবাই জানতে চাইবে অবশ্যই এবং একসময় সবাই চিনে নিবে ঐ ব্যক্তিকে । আপনি তার নামের মার্কেটিং গালির মাধ্যমে করে দিলেন । এটাও এক ধরনের মার্কেটিং। তবে মার্কেটিং হয়ে থাকে দুই ধরনের।

• গতানুগতিক মার্কেটিং ( Traditional Markating)

• ডিজিটেল মার্কেটিং ( Digital Markating)

আসুন আমার এই মার্কেটিং সমন্ধে ধারনা নিয়ে রাখি এবং এই দুই ধরনের মার্কেটিং গুলো কি ও কিভাবে কাজ করে।

গতানুগতিক মার্কেটিং Traditional Marketing কি

আ প্রতিদিনেই কোননা কোন ভাবে গতানুক মার্কেটিং এর আওতায় চলে আসেন। এর জন্য সবাই কম বা বেশি গতানুতিক মার্কেটিং এর সাথে পরিচিত। এই মার্কেটিং মানুষের বুঝতে সহজ হয় এবং দেখতে সহজ হয়। যুগ যুগ ধরে এই গতানুতিক মার্কেটিং এর সাথে আমরা চলে আসতেছি। এই গতানুগতিক মার্কেটিং এর মাধ্যমে সহজেই নিজের প্রডাক্ট বা ব্র্যান্ড কে প্রচার করে বিক্রি বৃদ্ধি করে থাকি। আসুন এবার দেখে নেই গতানুতিক মার্কেটিং কিসের উপর নির্ভর করে :

• রেডিও এ্যাড।
• টিভি এ্যাড।
• ব্যানার এ্যাড।
• নিউজ পেপার এ্যাড।
• ম্যাগাজিন এ্যাড।
• ফ্লায়ার এ্যাড।
• ব্রশিউর এ্যাড।
• ক্যালেন্ডার এ্যাড।
• সিনেমা এ্যাড।
উপরক্ত এ্যাডগুলো আপনাকে মিলিয়ন মিলিয়ন মানুষের কাছে আপনার পণ্য বা ব্রান্ডিং পৌছে দিবে। মানুষ সহজেই আপনার পণ্য সমন্ধে জানতে পারবে ও বুঝতে পারবে। আপনার যে কোন এড যখন টিভিতে, নিউজ পেপারে, সহ সব জায়গায় থেকে সব ধরনের সব বয়সের ও সকল পেশার মানুষ দেখতে পারবে। তখন অবশ্যই আপনার পণ্যের সেল বাড়বে। আপনি ওই গতানুতিক মার্কেটিং এর মাধ্যমে ভাল দর্শক ( অডিয়েন্স) সব সময় তৈরি করতে পারবেন। এভাবেই দেখতে দেখতে একদিন আপনার কোম্পানী, ব্রান্ডিং, সহ সব কিছু গতানুতিক মার্কেটিং এর মাধ্যমে সারাদেশে ও বিশ্বে পরিচিতি লাভ করবে।

ডিজিটাল মার্কেটিং Digital Markating কি

বর্তমান সময়ে অনলাইনে ব্যাপক সারা ফেলেছে। দিনে ও রাতের বেশিরভাগ সময়ে মানুষ স্যোসাল মিডিয়া ও ব্রাউজারে পরে থাকে। এখন আড্ডা গল্প বা যে কোন বিষয় নিয়ে মানুষ ইন্টারনেট এর উপর বেশি নির্ভরশীল। তাই আপনার পণ্যের প্রচার করার জন্য আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং এর দিকে ঝুকে পরতে পারেন। অনলাইনে মার্কেটিং করার জন্য আপনার হাজার হাজার প্লাটফরম রয়েছে। তাদের মধ্যে জনপ্রিয় হল:

• গুগল এ্যাড।
• স্যোসাল মিডিয়া।
• কন্টেন্ট মার্কেটিং।
• ই-মেইল মার্কেটিং।
• ইনবাউন্ট মার্কেটিং।
• ওয়েবসাইট মার্কেটিং।
• মোবাইল মার্কেটিং।
• আ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং।
• পিপিসি মার্কেটিং।

এই ইন্টারনেট ব্যবহার করে আপনি হাজার হাজার দর্শকের কাছে আপনার প্রডাক্ট বা ব্রান্ডিং মানুষের মাঝে পৌছে দিতে পারেন যে কোন সময় এবং যে কোন প্রান্তে। তাই আপনার প্রোডাক্ট ও ব্রান্ডিং যখন মানুষ ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে সকল তথ্য পাবে তখন অবশ্যই আপনার প্রডাক্ট এর সেল বাড়বে। এভাবেই একদিন আপনি সফলতার প্রান্তে পৌছে যেতে পারবেন।

কোন মার্কেটিং এ প্রবেশ করব

আপনি আপনার ব্রান্ড এর পরিচিত লাভ করার জন্য যে কোন মার্কেটিং এর উপর নির্ভর করবেন। এটা নির্ভর করবে আপনার ইনভেস্ট এর উপর। অনেক বড় বড় কোম্পানী তাদের পণ্যের পরিচিতির জন্য প্রায় ৬০% ব্যায় করে প্রডাক্ট প্রমোশন করার জন্য। আপনার যদি কোম্পানির ছোট হয় তাহলে অবশ্যই আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং দিয়ে শুরু করতে পারেন। তার কারন হল আপনি যখন গতানুতিক মার্কেটিং এর দিকে ঝুকে পড়বেন তখন আপনার ব্যয় অনেক বেশি হবে। হয়ত মার্কেটিং করতে গিয়ে আপনি নিজেই ঝড়ে পড়তে পারেন। আসুন এই ধরনের জন্য সুবিধা ও অসুবিধা দেখে নেই।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর সুবিধা

আপনি যতি ইন্টারনেটের মাধ্যমে মার্কেটিং করতে চার তাহলে আপনি অনেক সুবিধা পেয়ে যাবেন। খুবেই কম টাকায় আপনি এ্যাড মানুষের মাঝে পৌছে দিতে পারবেন। আপনি যে কোন ট্রেকিং এর মাধ্যমে প্রোডাক্ট এর সব তথ্য প্রদান করতে পারবেন। এছাড়া আপনি লোকেশন অনুযায়ী এ্যাড দিতে পাবেন। আ্যাফিলিয়েটে মার্কেটিং করার পর আপনি শুধু আপনার প্রডাক্টটি এ্যাড দিচ্ছেন না সাথে বিক্রিও করতে পারবেন সেখান থেকে । তাই বর্তমান সময়ে ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে এবং নতুন উদ্দ্যোক্তাদের জন্য ভাল ফলাফল দিচ্ছে।

গতানুতিক মার্কেটিং এর অসুবিধা

আপনি যদি টিভি এ্যাড, ব্যানার এ্যাড, রেটিও এ্যাড এর দিকে অগ্রসর হোন তাহলে আপনাকে প্রথমেই অনেক টাকা ব্যায় করতে হবে। তবে অবশ্যই গতানুতিক এ্যাড দিবেন যদি আপনার সেই রকম ইনভেস্ট ও প্রভিট থাকে। তাহলে দিতে সমস্যা নেই। আর আপনার কোম্পানী যখন ভাল লভ্যাংশরূপে পরিনত হবে তখন আপনি গতানুতিক এ্যাড দিতে পারেন। বিশ্বের বড় বড় কোম্পানীগুলো গতানুতিক এ্যাড এর উপর বেশি নির্ভর করে।

আপনি যে ধরনের মার্কেটিং করে আপনার ব্রান্ডিং প্রচলিত করেন না কেন। আপনার যদি সার্ভিস ও পণ্যের গুনগত মান ঠিক না থাকে তাহলে ফলাফল শূণ্য হয়ে যাবে। তাই আপনি আপনার সার্ভিস ও পণ্যের মান ঠিক রাখুন এবং দেখুন মার্কেট এ কেমন চাহিদা তারপর সেগুলো মার্কেটিং করতে থাকুন। বিশ্ব চলতেছে মার্কেটিং এর উপরেই, বিশ্বে মার্কেটিং এর নানা পদ্ধতি রয়েছে। আপনি ম্যানুয়াল মার্কেটিং, বাজ মার্কেটিং বা গ্রীণ মার্কেটিং যেটাই করুন না কেন আপনাকে মার্কেটিং সমন্ধে ভাল আইডিয়া রাখতে হবে। আপনি যদি সব রকম মার্কেটিং আইডিয়া রাখেন এবং পণ্যের গুনগত মান ও সার্ভিস ঠিক রাখেন তাহলে একদিন সফল হবেন।

পোস্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন

4 thoughts on “মার্কেটিং কি ও কত প্রকার এবং কিভাবে কাজ করবেন”

  1. Vai assalamualaikum,,,ami familyr boro celya,,,amr family akn onk problem ar moda asa,,,ami digital marketing kaj korty chyi,,,,,tai ai bisoy amka aktu help korben ki,,,

    Reply
    • ওয়াআলাইকুম আস্সালাম, ভাই ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ করতে গেলে রাতারাতি আপনি বড় হতে পারবেন না। আপনাকে সব বিষয়ে জানতে হবে, আপনি সব বিষয় নিয়ে শিখতে শুরু করুন। অনলাইনে আয় করার জন্য বহুরকম কৌশল ও কাজের ধাপ আছে।আপনি কোন বিষয়ের উপর কাজ করতে চান সেটি আগে সিলেক্ট করুন…. গুগলে সার্চ দিলে অনেক পাবেন আইডিয়া। আপনি সেখান থেকে সব কিছু শিখতে পারবেন।

      Reply
  2. আসসালামু আলাইকুম ,
    বিনিয়োগ করার মতো টাকা নেই আবার করোনার কারনে চাকরির বাজার মন্দা কিন্তু কোন একটি কাজ আমাকে করতেই হবে এখন আমি কি করতে পারি? যদি পরামর্শ দিতেন তাহলে উপকৃত হয়। ধন্যবাদ।

    Reply
    • ওয়াআলাইকুম আস্সালাম, ভাই আপনি যে কোন একটা কাজ খুজুুন। হয়তো পেয়ে যেতে পারেন। এর জন্য আপনার আশে পাশের কাজ দেখতে পারেন। ছোট কাজ হোক বা বড় কাজ হোক আপনি পাবেন এই কামনা রইল। ধন্যবাদ ভাই

      Reply

Leave a Comment